পৃষ্ঠাসমূহ

*এখন ঢাকায় তারিখ ও সময়*

ইন্টারনেট ব্রাউজারের জন্য সমৃদ্ধ একটি টুলবার


আমার তৈরি করা একটি টুলবার যা ইন্টারনেট ব্রাউজারে যোগ করা যায়। কয়েকটি সোর্স থেকে প্রতিনিয়ত সংবাদ শিরোনাম (যখনই ঘটনা তখনই আপেডেট), ফেসবুক, গুগল, বাংলা, ইংরেজি, বিদেশী, জাতীয়, স্থানীয় সকল প্রকার পত্রিকা, ইমেইল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রনালয়. অধিদপ্তর, কমিশন, সকল ব্যাংক, সকল বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, ধর্মীয় সাইট, বিভিন্ন ধরণের ডাউনলোড (অডিও, ভিডিও, বই, সফটওয়্যার, মোবাইল কনটেন্ট) সংক্রান্ত লিংক, বাংলা এফ.এম রেডিও, ক্রিকেটের লাইভ স্কোর, ইমেইল নোটিফিকেশন সিস্টেমসহ অনেক অনেক লিংকস রয়েছে । প্রতিদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই লিংকের সংখ্যা। এটি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম এবং সাফারি ওয়েব ব্রাউজার সাপোর্ট করে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০১৫ সালে ৭ম ও ৮ম শ্রেণি চালুর অনুমতি

২০১৪ সালে বাংলাদেশের যেসকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেণি চালু হয়েছিল তাদের  যথাক্রমে ৭ম ও ৮ম শ্রেণি চালুর অনুমতি প্রদান করা হয়েছে।


অনুমতি ব্যতিত ৬ষ্ঠ শ্রেণি চালু না করার জন্য আলাদা একটি পত্র জারি করা হয়েছে। 

আজ ১৯.০১.২০১৫ তারিখে পূর্ণ হলো আমার ব্লগের ২ লক্ষ ভিজিট

আজ ১৯ জানুয়ারি ২০১৫ তারিখ আমার ব্লগ  “জানতে হলে জানাতেও হবে“ ২ লক্ষ ভিজিটরের পদচারনায় ধন্য হলো। ধন্য হলাম আমি। ভালবাসায় সিক্ত হলাম আমার ব্লগের ভিজিটরদের দ্বারা যারা আমার ব্লগটাকে ভিজিট করে ভিজিটরের সংখ্যা একটা বড় অংকে পৌঁছে দিলেন। কৃতজ্ঞ সেসকল মানুষদের প্রতি যারা একবার হলেও ভিজিট করেছেন আমার এই ব্লগ। অনেকে জানতে চেয়েছেন আবার আমার ব্লগের মাধ্যমে জানাতেও চেয়েছেন। যারা জানতে চেয়েছেন তাদের জানাতে গিয়ে আমি নিজে জানতে হয়েছে। এই চক্র নিয়েই আমার পথচলা। সবার নিকট দোয়া কামনা করছি আমার এই পথচলা যেন থেমে না যায়।

সন্তান কর্তৃক পিতা-মাতার ভরণ-পোষণ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে প্রণীত আইন ২০১৩

সন্তান কর্তৃক পিতা-মাতার ভরণ-পোষণ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকার একটি আইন প্রনয়ণ করেছে। কোন পিতা মাতা এই আইনের দ্বারস্থ হবেন কিনা আমরা জানিনা। তারা যত কষ্টেই থাকেন না কেন সন্তানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে চান না। তারপরও যদি কোন পিতা-মাতা মনে করেন আইনের মাধ্যমে তাদের অধিকারটা যেন নিশ্চিত হয় তাদের জন্যই এই আইন।

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফলাফল এনড্রয়েড ফোনে দেখার জন্য এপস (Apps)

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ২০১৪ এর ফলাফল প্রকাশের পূর্বে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এনড্রয়েড ফোনে সহজে ফলাফল দেখার জন্য একটি এপ (Apps) তৈরি করে গুগল প্লে স্টোরে পাবলিশ করেছিল। এটা ব্যবহার করে অনেকেই ফলাফল দেখেছেন। আমি নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে এই এপসটি সবার সাথে শেয়ার করতে পারিনি। যদি কেউ আগ্রহ বোধ করেন তবে ডাউনলোড করতে পারেন। তবে আগামি বছরের জন্যও ডাউনলোড করে রেখে দিতে পারেন। 

ছবি, অডিও, ভিডিও আরও কত কি!! নিরাপদে রাখার জায়গা খুঁজে পাচ্ছেন না তো? আপনার Gmail একাউন্টেই তো রাখতে পারেন

ছবি, অডিও, ভিডিও, বিভিন্ন রকমের ডকুমেন্ট কত কিছুই না সংরক্ষণ করার প্রয়োজন হয় আমাদের। এ নিয়ে টেনশনের যেন শেষ নেই। নিজের কম্পিউটার থাকলে সেটার হার্ডডিস্কে রাখা যায় কিন্তু যেকোন সময় হার্ডডিস্ক ক্র্যাশ করতে পারে, পেনপড্রাইভে কিংবা সিডি/ডিভিডি-তে রাখা যেতে পারে কিন্তু সেটাও যেকোন সময় হারিয়ে

সদ্য জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলী নীতিমালা (সংশোধিত শিরোনাম)

সদ্য জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলী নীতিমালা ১২.০১.২০১৫ তারিখে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে প্রেরণ করা হয়েছে। ডাউনলোড করতে নিচের লিংক এ ক্লিক করুন

এই নীতিমালার আলোকে শুধুমাত্র সদ্য জাতীয়করণকৃত বিদ্যালয় থেকে সদ্য জাতীয়করণকৃত বিদ্যালয় এবং সরকারি বিদ্যালয় থেকে সরকারি বিদ্যালয়ে বদলি করা যাবে 

ডাউনলোড করতে লিংক এর উপর মাউসের ডান বাটনে ক্লিক করে Save Link As... অথবা Save target as এ ক্লিক করে সেভ করে নিন।


সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলির আবেদন যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে প্রেরণ প্রসঙ্গে




** সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলির আবেদন যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে প্রেরণ প্রসঙ্গে

** প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলি নীতিমালা (১৯/০৭/২০১১)

** সিটি কর্পোরেশন, জেলার সদর উপজেলা এবং পৌরসভায় বদলি স্থগিত সংক্রান্ত

** সিটি কর্পোরেশন, জেলার সদর উপজেলা এবং পৌরসভায় বদলি স্থগিত  স্পষ্টীকরণ সংক্রান্ত

** বদলি নীতিমালা আংশিক সংশোধন (31.12.2012)

** সদ্য জাতীয়করণকৃত শিক্ষকদের বদলি প্রসঙ্গে

কাগজপত্র সত্যায়িত করার দিন বুঝি ফুরিয়ে আসছে! প্রবর্তন হল সরকারি চাকরির আবেদনের মডেল ফরম

জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয় ২৯ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে সরকারি দপ্তরে শূন্যপদে নিয়োগের জন্য মডেল ফরম প্রবর্তন করেছে। এখন থেকে সকল দপ্তরকে এই ফরম অনুসারে চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে দরখাস্ত আহবান করতে হবে। এই ফরম ছাড়া প্রাথমিকভাবে অন্য কোন কাগজপত্র চাওয়া হবেনা। মৌখিক পরীক্ষার সময় সকল প্রকার তথ্য যাচাই করা হবে।   এত এত কাগজ ফটোকপি আর সত্যায়িত করার ঝামেলা আর পোহাতে হবেনা বলে আশা করা যাচ্ছে। ডাউনলোড করে দেখে নিন মডেল ফরমটি।