পৃষ্ঠাসমূহ

*এখন ঢাকায় তারিখ ও সময়*

বাংলা সংবাদপত্র

মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

'সরকারি শূন্য পদ পৌনে তিন লাখ'

সরকারি শূন্য পদ পৌনে তিন লাখ'
কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী সোমবার সংসদকে এসব তথ্য জানান।
সমকাল প্রতিবেদক 
১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৩ ২২:০৫:১৬
বর্তমানে সরকারি শূণ্য পদের সংখ্যা পৌনে তিন লাখ। এ ছাড়া পদস্বল্পতার কারণে বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ক্যাডার পদে নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হয় না। আর মাদ্রাসা থেকে ফাজিল ও কামিল
পাস শিক্ষার্থীদের চাকরির জন্য বিসিএস ও অন্যান্য প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ নেই।
সংসদের কার্যে দায়িত্বপ্রাপ্ত জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের অনুপস্থিতিতে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী সোমবার সংসদকে এসব তথ্য জানান।
সরকারি দলের সংরক্ষিত আসনের সদস্য অপু উকিলের লিখিত প্রশেুর জবাবে মতিয়া চৌধুরী জানান, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী সরকারি পদের সংখ্যা ১৪ লাখ ৫ হাজার ৫২৪টি। এর মধ্যে ২ লাখ ৭৫ হাজার ৯৬৪টি পদ শূণ্য রয়েছে। শূণ্য পদ পূরণ একটি চলমান প্রক্রিয়া। বর্তমানে শূণ্য পদগুলো সৃজন করায় তা পূরণের কার্যক্রম চলছে।
মো. শহীদুজ্জামান সরকারের প্রশেুর জবাবে কৃষিমন্ত্রী জানান, বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সব প্রার্থীকে পদস্বল্পতার কারণে ক্যাডার পদে নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হয় না। বর্তমান সরকার নন-ক্যাডার পদে নিয়োগ (বিশেষ) বিধিমালা-২০১০ প্রণয়ন করেছে।
বেনজীর আহমেদের লিখিত প্রশেুর জবাবে মতিয়া চৌধুরী জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ সাল থেকে চলতি বছরের এ পর্যন্ত ৩৪৫ জন কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়। এর মধ্যে সচিব ৭ জন, অতিরিক্ত সচিব ৪০, যুগ্ম সচিব ৯৯, উপসচিব ১২৩, সিনিয়র সহকারী সচিব ৬৭ ও সহকারী সচিব ৯ জন। অন্যদিকে বিএনপি-জামায়াত জোটের আমলে (২০০১-২০০৬) নানা কারণে ওএসডি করা হয়েছিল ৪১০ জনকে। এর মধ্যে সচিব ১৭ জন, অতিরিক্ত সচিব ৪০, যুগ্ম সচিব ৬০, উপসচিব ১৩৬, সিনিয়র সহকারী সচিব ৭৪ ও সহকারী সচিব ৮৩ জন।
শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানীর প্রশেুর জবাবে মন্ত্রী জানান, গত ১৮ জুলাই ৩২৬ জন উপসচিবকে যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। পদোন্নতি পাওয়া যুগ্ম সচিবদের উপসচিব পদে কাজ করানো হচ্ছে না।

কোন মন্তব্য নেই: